মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ইউনিয়নের ইতিহাস

এই ইউনিয়নের ইতিহাস সম্বন্ধে আমরা ১টি জনশ্রুতি সরুপ তথ্য পোয়েছি যে, একসময় এই গ্রামের পূর্ব পাশ ঘেষে যে ভৈরব নদী প্রবাহিত হয়েছে সেখানে বাণিজ্যিক যোগাযোগের জন্য বহু বড় বড় বজ্রা (বড় আকারের নৌকা) নোঙর করত। এই গ্রামের পশ্চিম পাশে রয়েছে বিল যার পরেই ভারতের ভুখন্ড। তখনকার সময় প্রচুর পানি থাকায় এই বিলের  উপর দিয়ে ভারতের সাথে এই এলাকার পানিপথে একটি ভালো বাণিজ্যিক যোগাযোগ ছিল।  সেসময় মানুষ এইজন্যই গ্রামটিকে দরিয়া পুর বলে আখ্যায়িত করত এবং পরে এটিকে দারিয়াপুর হিসেবে নামকরণ করা হয়।

পদ্মা নদীর শাঁখানদী ভৈরব নদীর ধার ঘেষে অবস্থিত ১নং দারিয়াপুর ইউনিয়ন। এটি মুজিবনগর উপজেলার অন্তর্ভুক্ত যা বাংলাদেশের সবচাইতে ছোট জেলা মেহেরপুরে অবস্থিত। এটি স্থাপিত হয় ১৯৪৬ সালে এবং আয়তন: ৭.৫ বর্গমাইল। তৎকালীন সময় বহু জমিদারের বসবাস ছিল এখানে পরবর্তীতে দেশ ভাগের সময় হাতেগোনা কিছু লোক ছাড়া সবাই এপার বাংলা ছেড়ে ওপার বাংলা অর্থাৎ ভারতের পশ্চিমবঙ্গে চলে যায়। ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় এই ইউনিয়ন ছিল ৮নং সেক্টরের অন্তর্ভুক্ত। এই ইউনিয়নে রয়েছে প্রায় ৪০ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার বাস। প্রথম দিকে এই ইউনিয়ন পরিষদের কোন বিল্ডিং ছিলনা। তৎকালীন সময়ের একটি অর্ধভগ্ন বাড়িতে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যাবলী সম্পাদন করা হতো যেটি এখন ক্লাব নামে পরিচিত। ১৯৯৫ সালে এ্যাড. কলিমদ্দিন চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় এই বিল্ডিংটি মেরামত ও কিছু বাড়তি ঘর নির্মাণ করেন। এখন বর্তমান সরকারের উদ্যোগে ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স নির্মাণের প্রস্তুতি চলছে।


Share with :

Facebook Twitter